পুর্ব শত্রুতার জেরে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন, চরম বিপাকে চাষী!

অন্যান্য

জেলা প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ:: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়নের পানামী গ্রামে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে এক মৎস্যচাষীর পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করেছে প্রতিপক্ষরা। রোববার রাতে সদর উপজেলার ওই গ্রামের মধ্যপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ক্ষতিগ্রস্থ মৎস্যচাষী বাবুল মন্ডল জানান, তার বাড়ির পাশের পুকুরে তিনি মাছ চাষ করে আসছেন। পুকুরে তিনি ৮ মাস আগে বিভিন্ন জাতের ৫ মন মাছের পোনা ছাড়েন। কিছুদিনের মধ্যে মাছগুলো বিক্রি করার আশা করছিলেন তিনি। সোমবার (১৬ মে) সকালে পুকুরে মাছের খাবার দিতে গেলে মাছগুলো ভেসে উঠতে দেখেন। দুপুর পর্যন্ত পুকুরের সকল মাছ মরে ভেসে উঠেছে। এতে তার প্রায় ২ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

বাবুল মন্ডল অভিযোগ করে বলেন, বেশ কয়েকদিন যাবত প্রতিবেশী ছমির মোল্লার সাথে তার বিরোধ চলে আসছিল। গত ৪ দিন আগে তার পুকুরে ঘিরে দিলে তিনি মাছ মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছিলেন। রোববার রাতে তারা বাড়িতে মিটিং ও করেছে। আমাদের পুরো সন্দেহ ছমির মোল্লা ও তার লোকজন আমার পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মেরে দিয়েছে।

হরিশংকরপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওই গ্রামের বাসিন্দা আবু আলম লালু বলেন, পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ মারা একটি ন্যাক্কার জনক ঘটনা। আমার বিশ্বাস এই ঘটনা বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশী ছমির ও তার লোকজন করেছে। মানুষের সাথে বিরোধ থাকতেই পারে তাই বলে মাছ নিধন করা খুবই জগণ্যতম কাজ। এর সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ছমির মোল্লা বলেন, আমরা এই কাজ করিনি। আমরা করলাম নাকি তৃতীয় পক্ষ করলো আপনারা তদন্ত করে দেখেন। তবে বলি আমরা এই কাজ করিনি।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, ঘটনার সংবাদ শুনে সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। ক্ষতিগ্রস্থ মৎস্যচাষীরা লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন