ঝিনাইদহে হেভিওয়েটদের হটিয়ে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে দুই প্রার্থীর চমক!

সারাদেশ

জেলা প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ:: সীমানা জটিলতা মামলায় ২০১৫ সাল থেকে আটকে থাকা ঝিনাইদহ পৌরসভা, সদরের সুরাট ও পাগলাকানাই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ১১ বছর পর অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ জুন। এর আগে ২০১১ সালের এপ্রিলে ঝিনাইদহ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে ২০১১ সালের জুনে সর্বশেষ সুরাট ও পাগলাকানাই ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

পৌরসভা নির্বাচনে হেভিওয়েট দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের হটিয়ে আ’লীগের দলীয় মনোনায়ন পেয়েছেন জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি বর্ষিয়ান নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক।

অপরদিকে পাগলাকানাই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছিল পৌরসভার অর্থ আত্মসাৎকারী বিকতর্কিত আসাদুজ্জামান চানকে। কিন্তু সমালোচনার মুখে এ ইউনিয়নে প্রার্থী পরিবর্তন করেছে আওয়ামী লীগ। চানের পরিবর্তে এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন লাভ করেছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আতাউর রহমান আতা।

২০১৫ সালের এপ্রিলে সুরাটের লাউদিয়া এবং পাগলাকানাইয়ের গয়াশপুর ও কোরাপাড়াকে পৌরসভা এলাকায় সংযুক্ত করার জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণলায় প্রজ্ঞাপন জারী করে। এই অবস্থায় ওই দুটি ইউনিয়নের পক্ষ থেকে ওই তিনটি এলাকা ছাড়া সম্ভব নয় মর্মে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। ফলে মামলাজনিত কারনে ২০১৬ সালে ঝিনাইদহ পৌরসভা এবং ওই দুটি ইউনিয়নে ভোট গ্রহন বন্ধ থাকে। অবশেষে দীর্ঘ ৭ বছর আইনি প্রক্রিয়া শেষে হাই কোর্টের নির্দেশে নির্বাচন কমিশন আগামী ১৫ জুন ভোট গ্রহনের দিন ধার্য্য করে ঝিনাইদহ পৌরসভা, সুরাট এবং পাগলাকানাই ইউনিয়নের নির্বাচনী তফসীল ঘোষনা করে।

১৫ জুনের এ নির্বাচনে আ’লীগ দলীয় মনোনায়ন পেতে মরিয়া ছিলেন সদ্য সাবেক মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জীবন কুমার বিশ্বাস, পৌর আ’লীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান মাসুম, যুবলীগ নেতা নাসের আলম সিদ্দীকি ও বাসের আলম সিদ্দীকি। অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শুক্রবার রাতে আ’লীগের মনোনায়ন বোর্ড ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র পদে দলীয় মনোনায়ন দেন জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেককে। ক্লিন ইমেজের অধিকারী আব্দুল খালেক ইতি পুর্বে ২০০৪ সালে বিএনপি সরকারের আমলে জেলা আ’লীগের সিদ্ধান্তনুসারে পৌর নির্বাচনে অংশ নেন। এরপর ২০১১ সালে দলীয় প্রার্থী সাইদুল করিম মিন্টুর বিরুদ্ধে বিদ্রহী প্রার্থী হন। দুটি নির্বাচনে তিনি পরাজিত হলেও ২০০৪ সালে দ্বিতীয় ও ২০১১ সালে তৃতীয় হয়ে উল্লেখযোগ্য ভোট পান।

অন্যদিকে ১১ বছর আগে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সুরাট ইউনিয়নে আ’লীগের দলীয় প্রার্থী কবির হোসেন জোয়ার্দার কেবি ও পাগলাকানাই ইউনিয়নে বিএনপি দলীয় প্রার্থী নজরুল ইসলাম জয়লাভ করেন। আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সুরাট ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান কবির হোসেন জোয়ার্দার কেবিকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনায়ন দেয়া হয়।

পাগলাকানাই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনায়ন প্রত্যাশী ছিলেন থানা আ’লীগের যুগ্ম সম্পাদক আবু সাইদ বিশ্বাস। কিন্তু শুক্রবার রাতে দলীয় প্রার্থী হিসাবে মনোনায়ন দেয়া হয় ঝিনাইদহ পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা আছাদুজ্জামান চানকে। চান পৌরসভার চেক জালিয়াতির অভিযোগে অভিযুক্ত হওয়ায় তার মনোনায়নের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে। মনোনায়ন পরিবর্তনের দাবীতে সোচ্চার হয়ে উঠেন এলাকাবাসী। এই অবস্থায় রোববার দুপুরে আছাদুজ্জামান চানকে পরিবর্তন করে নতুন করে মনোনায়ন দেয়া হয় জেলা ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির প্রচার সম্পাদক আতাউর রহমান আতাকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন