৪টি গরুর অস্বাভাবিক মৃত্যু, দুশ্চিন্তায় কৃষক

সারাদেশ

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ:: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কুঠিদুর্গাপুর গ্রামের মামুন মিয়ার ৪টি গরু অজ্ঞাত কারণে মারা গেছে। মঙ্গলবার বিকালে ২টি ও এর তিনদিন আগে আরও দুটি গরু মারা গেছে। মামুন মিয়া কুঠিদুর্গাপুর গ্রামের মৃত জহুরুল হক কানাইয়ের ছেলে। মামুন পারিবারিক খামারে সংকর জাতের কিছু গরু পালন করছিলেন।

তিনি জানান, তিনতিন আগে সকালে গরুর খাবার দিতে গিয়ে দেখতে পান অস্বাভাবিকভাবে দুইটা গরু শুয়ে আছে। কাছে গিয়ে দেখতে পান একটি গাভী ও একটি বকনা মারা গেছে। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে গোয়ালের মধ্যেই আবার একটি বকনা ও একটি গাভী মারা যায়। কিন্তু কি কারণে মারা যাচ্ছে বুঝতে পারছি না।

গান্না ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুল হাসান মাসুম জানান, পর পর তিনদিনে ঐ কৃষকের ৪টি গরু মারা গেল। কি কারণে মারা যাচ্ছে এটার তদন্ত হওয়া দরকার। যদি কোন পয়জনিং কারণে হয় তাহলে এই বিষয়ে অন্য কৃষকদের সচেতন হতে হবে। না হলে তারাও ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলা প্রাণি সম্পদক কর্মকর্তা ডা. মো. তারেক মুসা জানান, বৃষ্টি হলে মাঠের ঘাসে প্রাকৃতিকভাবে ইউরিয়া সংযোজিত হয়। এসময় ঘাস অতিরিক্ত সবুজ হয় এবং হঠাৎ করে অনেক বড় হয়ে যায়। এই কৃষক সম্ভবত এমন ঘাস গরুকে খাইয়ে থাকতে পারেন বলে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। আমরা ঘটনাস্থলে যাচ্ছি। সরজমিনে গেলে এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত বলতে পারবো। তবে বৃষ্টি হলে মাঠ থেকে সংগ্রহ করা অতিরিক্ত সবুজ ঘাস গরুকে খাওয়া ঠিক নয়। এই ঘাস একটু হলুদভাব না আসলে অথবা না শুকিয়ে গরুকে খাওয়ানো যাবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন