একদিকে গান, অন্যদিকে মারামারিতে মাথা ফাটলো তরুণের!

সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক:: সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে দুই মন্ত্রীর অনুষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবকদের দায়িত্বে থাকা স্কাউটসের সদস্যদের হামলায় এক তরুণ আহত হয়েছেন। তার মাথায় তিনটি সেলাই লেগেছে।

রোববার (৮ মে) বিকালে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট বালক (অনূর্ধ্ব-১৭) ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট বালিকা (অনূর্ধ্ব-১৭) ২০২২ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সিলেট থেকে এবারের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট বালক (অনূর্ধ্ব-১৭) ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট বালিকা (অনূর্ধ্ব-১৭) ২০২২ এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রোববার বিকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আবদুল মোমেন এমপি এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ হাসান রাসেল এমপি টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পূর্বে অনুষ্ঠানস্থলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলছিল। এসময় বিশ্বনাথ উপজেলার কারিকোণা এলাকার বাসিন্দা মৃত জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে লোকন মিয়া (১৭) সেখানে অবস্থান করছিলেন। এসময় স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্বে থাকা স্কাউটস’র সদস্যরা তাকে ও তার ভাই আলমকে সরাতে চাহিলে তারা সরতে দেরি করেন। এসময় স্কাউটসের সদস্যরা তাদের গায়ে ধাক্কা দেন। ধাক্কা দেয়াকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবকেরা লাঠি দিয়ে তাদের মারতে থাকেন। স্বেচ্ছাসেবকদের মারধরে লোকন মিয়ার মাথা ফেটে যায়। তাৎক্ষণিকভাবে তার রক্তক্ষরণ হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হলেও তার মাথায় ৩টি সেলাই করতে হয়।

আহত লোকন ও আলম বলেন, ‘আমরা গান চলাকালে সেখানে গান শুনতে যাই। এসময় স্বেচ্ছাসেবকেরা সেখান থেকে সরে যেতে বললে আমরা দেরি করে ফেলি। এসময় একজন আমাদের ধাক্কা দেয়। আমরা ধাক্কা দেয়ার প্রতিবাদ করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের ওপর লাঠি দিয়ে হামলা চালায়। এতে লোকনের মাথা ফেটে রক্তক্ষরণ হয়। তার ৩টি সেলাই লাগে। আমরা নিজ খরচে চিকিৎসা করাই।’

নিজেদের দোষ অস্বীকার করে সিলেটের স্কাউটস দলের এসআরএম সাবের হাসান বলেন, ‘আমাদের স্কাউটের যারা আছে তাদের পোশাক পরিহিত। পোশাক বিহীন কেউ স্কাউটসের সদস্য হতে পারে না। ঘটনার সময় আমরা উভয় পক্ষকে নিভৃত করার চেষ্টা করেছি।’

এ বিষয়ে সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন সেলিম বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে জানিনা। খোঁজ খবর নিচ্ছি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন