সামরিক খাতে সর্বোচ্চ ব্যয় যুক্তরাষ্ট্রের

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ২০২১ সালে বিশ্বজুড়ে আবারও সামরিক ব্যয় বেড়েছে। শুধু তা-ই নয়, বিশ্বে সামরিক ব্যয় বৃদ্ধির রেকর্ড হয়েছে। গত বছর সামরিক খাতে সর্বোচ্চ ব্যয় করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর পর রয়েছে চীন। তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত।

সোমবার সুইডেনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই।

বিবৃতিতে জানিয়েছে, গত বছর বিশ্বের সামরিক ব্যয় সর্বকালের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। ২০২১ সালে বিশ্বের সামরিক ব্যয় ছিল ২১ হাজার কোটি ডলারেরও বেশি। গত বছর মোট বৈশ্বিক সামরিক ব্যয় শূন্য দশমিক ৭ শতাংশ বেড়ে ২১ হাজার ১৩০ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ব্যয়কারী শীর্ষ পাঁচটি দেশ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত, যুক্তরাজ্য ও রাশিয়া। মোট বৈশ্বিক সামরিক ব্যয়ের ৬২ শতাংশ সম্মিলিতভাবে ব্যয় করেছে এই পাঁচটি দেশ।

এসআইপিআরআই-এর জ্যেষ্ঠ গবেষক ড. ডিয়েগো লোপেস দা সিলভা বলেছেন, ‘করোনা মহামারির কারণে অর্থনৈতিক পতনের মধ্যেও বিশ্বের সামরিক ব্যয় রেকর্ড মাত্রায় পৌঁছেছে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ২০২১ সালে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক খাতে ব্যয় করেছে আট হাজার ১০ কোটি ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় এক দশমিক ৪ শতাংশ কম। ২০১২ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সামরিক গবেষণা ও উন্নয়নে ২৪ শতাংশ অর্থায়ন বাড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এই সময়ে অস্ত্র কেনার পেছনে বরাদ্দ কমিয়েছে ছয় দশমিক ৪ শতাংশ।

দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা চীন ২০২১ সালে দুই হাজার ৯৩০ কোটি ডলার প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় করেছে। এটি ২০২০ সালের তুলনায় ৪ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি। অন্যদিকে ভারতের গত বছর সামরিক ব্যয় ছিল সাত হাজার ৬৬০ কোটি ডলার, যা ২০২০ সালের চেয়ে শূন্য দশমিক ৯ শতাংশ বেশি।

রাশিয়ার সামরিক ব্যয় বিশ্বে শীর্ষ ব্যয়কারী দেশের মধ্যে পঞ্চম। ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালে দেশটি দুই দশমিক ৯ শতাংশ সামরিক ব্যয় বাড়িয়েছে। এতে তাদের মোট খরচ হয়েছে ৬৫৯ কোটি ডলার।

সংবাদটি শেয়ার করুন