আল আকসা মসজিদে ইহুদিদের প্রার্থনা বন্ধের আহ্বান আরব লীগের

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ ইহুদিদের প্রার্থনা বন্ধ করতে ইসরায়েলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আরব লীগ। একইসঙ্গে আরব দেশগুলোর এই জোটটি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, এ ধরনের কর্মকাণ্ড মুসলিম অনুভূতির জন্য অপমানজনক। এর ফলে ব্যাপক সংঘর্ষের সূত্রপাত হতে পারে। খবর আল-জাজিরার।

পবিত্র আল-আকসা মসজিদ ঘিরে সম্প্রতি ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এ ছাড়া ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী মসজিদের ভেতরে কয়েক দফায় অভিযান চালানোয় ঘটেছে সহিংসতার ঘটনাও। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে আল-আকসা মসজিদ ঘিরে উত্তেজনা চললেও আরব লীগ এতদিন নীরব ছিল। তবে ইসরায়েলি কর্মকাণ্ড ও সাম্প্রতিক সহিংসতার বেড়ে যাওযা নীরবতা ভেঙেছে তাদের।

আরব লীগ জানায়, জেরুজালেমের পুরনো শহরে মুসলমানদের ইবাদতের অধিকার ক্ষুণ্ণ করছে ইসরায়েল। পাশাপাশি পুলিশি নিরাপত্তার মাধ্যমে উগ্র-জাতীয়তাবাদী ইহুদিদের পবিত্র এই স্থানে প্রবেশের সুযোগও করে দিচ্ছে দেশটি। ফিলিস্তিন ও আল-আকসার পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার জর্ডানের রাজধানী আম্মানে জরুরি বৈঠকে বসে আরব লীগ। বৈঠকে জেরুজালেমে ইসরায়েলের অবৈধ নীতি ও পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আইমান সাফাদি বলেন, ‘আমাদের দাবি স্পষ্ট যে, আল-আকসা এবং হারাম আল শরীফের পুরো এলাকাটি একমাত্র মুসলমানদের ইবাদত করার জায়গা।’

এদিকে, আরব লীগের প্রধান আহমেদ আবুল ঘেইত বলেছেন, বহু শতাব্দীর পুরনো একটি নীতি লঙ্ঘন করছে ইসরায়েল। পুরনো এই নীতি অনুসারে, অমুসলিমরা আল-আকসা প্রাঙ্গণে যেতে পারে, কিন্তু তারা সেখানে প্রার্থনা করতে পারবে না।

চলতি সপ্তাহে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আইমান সাফাদি। এ সময় পবিত্র স্থানটিতে উত্তেজনা কমানোর বিষয়ে আলোচনা করেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন